প্রকাশের সময়:
শুক্রবার ৪ জুন ২০২১ ০২:২২:০০অপরাহ্ন

বাসায় সারাদিন চলছে ওয়াইফাই, কতোটা ক্ষতি হচ্ছে শরীরের?

ওয়াইফাই রাউটার

মহানগর ডেস্ক   >>

করোনা শুরুর পর থেকে বাসায় কাজের পরিধি অনেক বেড়ে গেছে। প্রায়ই বাসায় এখন ইন্টারনেট সংযোগ। করোনার কারণে অনেকেই বাড়ি থেকে কাজ করছেন। আর তাতে বেড়েছে ইন্টারনেটের ব্যবহার। সব সময় ইন্টারনেট ব্যবহারের জন্য অনেকেই ব্যবহার করেন ওয়াইফাই রাউটার। তা থেকে তরঙ্গের মাধ্যমে ইন্টারনেট পৌঁছে যায় কম্পিউটার বা ফোনে। এই ওয়াইফাই তরঙ্গের মধ্যে সারা দিন থাকা আদৌ নিরাপদ কি? অনেকে রাতেও বন্ধ করেন না এই রাউটার। সেটাও কি স্বাস্থ্যকর?

বৈদ্যুতিক যন্ত্র থেকে দুই ধরনের বিকিরণ হয়। ‘আয়নাইজিং’ এবং ‘নন-আয়নাইজিং।’ মাইক্রোওয়েভের মতো যন্ত্রে ব্যবহার করা হয় প্রথমটি। আর ওয়াইফাই, ব্লুটুথ যন্ত্রের ক্ষেত্রে ব্যবহার করা হয় দ্বিতীয়টি। দ্বিতীয়টি সে ভাবে শরীরের ক্ষতি করে না বলেই দাবি করে এসেছেন বিজ্ঞানীরা।

যদিও সম্প্রতির জার্মানির ‘ফেডেরাল অফিস ফর রেডিয়েশন প্রোটেকশন সাবধান করছে দ্বিতীয় ধরনের বিকিরণ নিয়েও। বলা হচ্ছে, ওয়াইফাই-এর সিগন্যালের মধ্যে সারাক্ষণ থাকলে তার প্রভাব পড়তে পারে শরীরে। মস্তিষ্কের কোষে তার প্রভাব পড়তে পারে। এমনকি ডিএনএ-র গড়নেও বদল আসতে পারে।

জার্মানির ‘ফেডেরাল অফিস ফর রেডিয়েশন প্রোটেকশন’ থেকে এ তরঙ্গের  খারাপ প্রভাব থেকে বাঁচতে কিছু পরামর্শও দেওয়া হয়েছে । 

ঘুমানোর সময় অবশ্যই ওয়াইফাই রাউটার বন্ধ করে দিন। যখন ব্যবহার করছেন না তখন ব্লুটুথ স্পিকার বা রাউটার বন্ধ রাখুন। ইন্টারনেটের প্রয়োজন না থাকলে সেই সময়ে ওয়াইফাই তো বটেই ফোনের ডেটা-ও বন্ধ করে দিন। যদি সম্ভব হয়, ওয়াইফাই ব্যবহার না করে তারের মাধ্যমে ইন্টারনেট ব্যবহার করুন।

কেডি



আরও খবর